Header Ads


moving image by marquee html code

গত দশ বছরে বাংলাদেশে যতটা ইসলামীকরণ হয়েছে, তা আগে ঘটেনি

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় সুপ্রিম কোর্টের সামনে স্থাপিত ভাস্কর্যটি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনের ভেতরে যে এতটা ঘোরতর আপত্তি, সেটি হয়তো অনেকে ধারণাই করতে পারেননি।
মঙ্গলবার রাতে গণভবনে আলেমদের এ অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা বেশ খোলামেলাভাবেই বলেছেন যে সেখানে ভাস্কর্য স্থাপন করাটা তিনি মোটেও পছন্দ করেননি।
সেই ভাস্কর্যটি অপসারণের দাবিতে হেফাজতে ইসলাম গত কয়েক মাস ধরে আন্দোলন করলেও মনে হচ্ছিল সরকার হয়তো বিষয়টিকে আমলে নিচ্ছে না ।
কিন্তু ভাস্কর্যটি অপসারণের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমর্থন বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির সরকার ও রাজনীতির অধ্যাপক ড: আলী রীয়াজ মনে করেন যে এটি শুধুই ভাস্কর্য অপসারণের বিষয় নয়।
এ ধরনের মনোভাব বাংলাদেশের সমাজ ও রাজনীতিতে দীর্ঘমেয়াদী নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলে মনে করেন তিনি।
অধ্যাপক রীয়াজ বলেন, "দেখুন আমি এতে খুব বিস্মিত হইনি। তারা যে এই প্রথমবারের মতো কোন ইসলামপন্থী দলের দাবী মেনে নিলেন বা হেফাজতের দাবী মেনে নিলেন, তাও আমার কাছে মনে হচ্ছে না।"
তাঁর ধারণা সরকার এক ধরনের রাজনৈতিক চাপের মধ্যে আছে। তবে সে চাপ মোকাবেলার জন্য তাদের যে ধরনের আদর্শগত অবস্থান থাকা উচিত সেটা তাদের নেই।
অধ্যাপক রীয়াজ মনে করেন, খানিকটা চাপে পড়ে এবং খানিকটা রাজনৈতিক সুবিধা নেওয়ার জন্য সরকার এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। সে কারণেই আওয়ামী লীগ হয়তো এ মুহূর্তে হেফাজতে ইসলাম-এর মতো শক্তির সাথে আপোষ করাকে সঠিক বলে মনে করে।

No comments

Thanks you for comment

Powered by Blogger.