Header Ads


moving image by marquee html code

শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করার পথে ভারত

টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজেও শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশের পথে হাঁটতে চলেছে বিরাটবাহিনী। বৃহস্পতিবার কলম্বোয় চতুর্থ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ১৬৮ রানে হারাল ভারত।
টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজেও শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশের পথে হাঁটতে চলেছে বিরাটবাহিনী। বৃহস্পতিবার কলম্বোয় চতুর্থ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ১৬৮ রানে হারাল ভারত।
সেই সঙ্গে পাঁচ ওয়ান ডে সিরিজে ৪-০ এগিয়ে গেল টিম ইন্ডিয়া। এর ফলে ২০১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলা থেকে ছিটকে গেল শ্রীলঙ্কা। বিশ্বকাপ খেলতে এবার যোগ্যতা অর্জন ম্যাচ খেলতে হবে ১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপ জয়ী শ্রীলঙ্কাকে।
প্রথম ব্যাটিং করে লঙ্কার বোলারদের নিয়ে ছেলেখেলা করেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মা জোড়া সেঞ্চুরিতে ৩৭৫ রান তোলে ভারত। ৯৬ বলে ১৩১ রানের ইনিংস খেলেন বিরাট। ১৭টি বাউন্ডারি ও দু’টি ওভার বাউন্ডারি মারেন ক্যাপ্টেন কোহলি। ১০৪ রানের ইনিংস খেলেন রোহিত। হাফ-সেঞ্চুরি করেন মণীশ পাণ্ডে এবং ৪২ বলে ৪৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন ধোনি।
এদিন ক্যারিয়ারের ৩০০ ওয়ান ডে ম্যাচ খেলতে নামেন ধোনি। মাইল্টোন ম্যাচে বিশ্ব রেকর্ডও করেন ধোনি। ৭৩বার নট-আউট থেকে টপকে যান শন পোলক ও চামিণ্ডা ভাসকে। ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বোলারদের উপর ছড়ি ঘোডা়ন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার জোড়া শতরানে শ্রীলঙ্কার সামনে ৩৭৬ রানের টার্গেট রাখে ভারত। রান তাড়া করতে নেমে ২০৭ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। ১৬৮ রানে জিতে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৪-০ করে ফেলে টিম কোহলি।
এর আগে ৭৬ বলে সেঞ্চুরি করে ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ২৯তম শতরান করলেন কোহলি। সেই সঙ্গে ওয়ান ডে ক্রিকেটের ইতিহাস তৃতীয় সর্বাধিক সেঞ্চুরি মালিক হলেন বিরাট। মাত্র ১৯২টি ম্যাচে ২৯টি সেঞ্চুরিটি করেন ভারতের এই বর্তমান অধিনায়ক।
কোহলির আগে রয়েছেন দুই কিংবদন্তি। সর্বাধিক সেঞ্চুরির মালিক শচীন। ওয়ান ডে ক্রিকেটের ইতিহাসে ৪৯টি সেঞ্চুরি করে শিখরে মাস্টার ব্লাস্টার। ৪৬৩টি ম্যাচে ৪৯টি সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। তার পরে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন পন্টিং। সাবেক অজি অধিনায়কের ওয়ান ডে সেঞ্চুরির সংখ্যা ৩০টি। ৩৭৫টি ম্যাচে এই সংখ্যক সেঞ্চুরি করেন ‘পান্টার’। অর্থাৎ আর একটি মাত্র সেঞ্চুরি করলেই পন্টিংকে ছুঁয়ে ফেলবেন বিরাট।

No comments

Thanks you for comment

Powered by Blogger.