Header Ads


moving image by marquee html code

সোনারগাঁয়ে মেঘনা নদীতে দুই শ্রমিকের লাশ উদ্ধার

সোনারগাঁয়ে মেঘনা নদীতে রোববার ইমরান হোসেন ও মনির হোসেন নামে দুই শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এছাড়া মাসুম নামে অপর এক শ্রমিক এখনো নিখোঁজ রয়েছে।  জানা গেছে, রোববার সকালে উপজেলার মেঘনা শিল্পনগরী এলাকার ফ্রেশ ড্রিংকিং ওয়াটার কোম্পানীর মেশিন অপারেটরের সহকারি ইমরান, মাসুম, মামুন ও তরিকুল কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে মাছ ধরতে উপজেলার গঙ্গানগর নয়াচর এলাকায় মেঘনা নদীতে যান। এসময় মাছ ধরার এক পর্যায়ে ইমরান ও মাসুম মেঘনার পনিতে তলিয়ে যায়। খবর পেয়ে ফ্রেশ কোম্পানীর ডুবুরীরা প্রায় ৩ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে ইমরানের লাশ উদ্ধার করে। কিন্তু মাসুম এখনো নিখোঁজ রয়েছে। নিহত ইমরান নরসিংদী জেলার পলাশ থানার পলাশবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা।
 সোনারগাঁয়ে মেঘনা নদীতে রোববার ইমরান হোসেন ও মনির হোসেন নামে দুই শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এছাড়া মাসুম নামে অপর এক শ্রমিক এখনো নিখোঁজ রয়েছে।
জানা গেছে, রোববার সকালে উপজেলার মেঘনা শিল্পনগরী এলাকার ফ্রেশ ড্রিংকিং ওয়াটার কোম্পানীর মেশিন অপারেটরের সহকারি ইমরান, মাসুম, মামুন ও তরিকুল কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে মাছ ধরতে উপজেলার গঙ্গানগর নয়াচর এলাকায় মেঘনা নদীতে যান। এসময় মাছ ধরার এক পর্যায়ে ইমরান ও মাসুম মেঘনার পনিতে তলিয়ে যায়। খবর পেয়ে ফ্রেশ কোম্পানীর ডুবুরীরা প্রায় ৩ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে ইমরানের লাশ উদ্ধার করে। কিন্তু মাসুম এখনো নিখোঁজ রয়েছে। নিহত ইমরান নরসিংদী জেলার পলাশ থানার পলাশবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা।
এ ঘটনায় ফ্রেশ ড্রিংকিং ওয়াটার কোম্পানীর এজিএম দিদার রসুল বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন এবং থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল কাশেম বাদি হয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা করেছেন।
অন্যদিকে গত ১৮ দিন পূর্বে উপজেলার মেঘনা ব্রীজ এলাকায় বাল্কহেড সহ মেঘনা নদীতে ডুবে যাওয়া শ্রমিক মনির হোসেনের লাশ গতকাল রোববার সকালে উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত মনির হোসেন লক্ষীপুর জেলার রামগতি থানার চরমেহের গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে।
এ ঘটনায় নিহত শ্রমিকের বাবা জাকির হোসেন তার দায়েরকৃত অপমৃত্যু মামলায় উল্লেখ করেন, তার ছেলে মনির হোসেন একটি বাল্কহেডের লস্কর ছিলো। গত ২১ সেপ্টেম্বর সকালে সে সোনারগাঁ উপজেলার আনন্দবাজার বালু মহাল থেকে উক্ত বাল্কহেডে বালু ভরাট করে ঢাকার বসুন্ধরায় যাওয়ার পথে মেঘনা ব্রীজের কাছে এলে দুর্ঘটনাবশত বাল্কহেডের তলা ফেটে বাল্কহেড সহ পানিতে তলিয়ে যায়। এরপর থেকে সে নিখোঁজ ছিলো। রোববার সকালে বাল্কহেড উদ্ধারের পর বাল্কহেডের মেশিন থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

No comments

Thanks you for comment

Powered by Blogger.