Header Ads


moving image by marquee html code

কংকা ফ্যাক্টরিতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা

কংকা ফ্যাক্টরিতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা


সোনারগাঁ উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের সাদিপুর  এলাকায় কনকা ইলেকট্রনিক্সের কারখানায় সংঘটিত আগুন ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিটের চেষ্টায় সাড়ে ৪ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

রোববার (৩ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। বিকেল সাড়ে ৩ টা ১০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস। এরপর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ডাম্পিংয়ের কাজ শুরু করে।

আগুন নেভাতে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের সোনারগাঁও, বন্দর, ডেমরা স্টেশনের ১২টি ইউনিট ও ৮০ জন কর্মী। এতে সহায়তা করে পুলিশ, র‍্যাব, স্বেচ্ছাসেবী ও স্থানীয়রা।

শ্রমিকরা জানান, সকালে কাজে যোগদান করার পরপরই আগুন লাগে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেক। শ্রমিকদের মধ্যে ইঞ্জিনিয়ার আতিক ও আরেকজন (নাম জানা যায়নি) আহত হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের নারায়ণগঞ্জের উপ-পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন জানান, খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে কাজ শুরু করেছি। আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে প্রধান ফটক নির্মাণাধীন থাকায় ভেতরে প্রবেশে আমাদের বেগ পেতে হয়েছে তাই আমাদের গাড়ি ভেতরে প্রবেশে সমস্যা হয়। আগুনের সূত্রপাত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষকণিকভাবে জানানো সম্ভব হচ্ছে না।

ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা বিভাগীয় উপপরিচালক বলেন, ফ্রিজ তৈরির কারখানায় প্রচুর কর্কশিট, প্লাস্টিক, প্লাস্টিকের দানা, কাপড়জাতীয় জিনিস ও পেট্রোলিয়াম প্রোডাক্ট থাকার কারণে আগুন নেভাতে বেগ পেতে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, কারখানার স্টোররুম থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। তিনতলাবিশিষ্ট ওই ভবন থেকে কনকা ব্র্যান্ডের ফ্রিজ তৈরি করে বাজারজাত করা হতো

এ বিষয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষের কোনো দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আতিকুল ইসলাম বলেন, আগুন লাগার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তাদের সার্বিক নিরাপত্তাসহ অন্যান্য সহযোগিতা করে আসছেন। এখন পর্যন্ত কেউ হতাহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

No comments

Thanks you for comment

Powered by Blogger.